Menu

শেরপুরে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে গৃহবধূকে হত্যার চেষ্টা


শেরপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি: বগুড়ার শেরপুরে পূর্ব শক্রতার জেরধরে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে এক গৃহবধূকে হত্যার চেষ্টা চালিয়েছে এক মাদক ব্যবসায়ী। উপজেলার সুঘাট ইউনিয়নের চককল্যাণী গ্রামের মাদক ব্যবসায়ী মুকুল হোসেন এই ঘটনাটি ঘটায়। উক্ত ঘটনায় মুকুলকে অভিযুক্ত করে থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়া হলেও অদ্যবধি অভিযোগটি এজাহার হিসেবে নথিভুক্ত করা হয়নি। পাশাপাশি ওই মাদক ব্যবসায়ীকে ধরছে না পুলিশ।

বৃহস্পতিবার দুপুরে শহরের স্থানীয় বাসষ্ট্যান্ডস্থ শেরপুর প্রেসক্লাব কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে গুরুতর আহত ওই গৃহবধূর ছেলে আবু জাফর এসব অভিযোগ করেন। তিনি বলেন, গত ১৪মার্চ বিকেলে উপজেলার চককল্যাণী গ্রামস্থ বাড়ির মধ্যে বসে মাছ কাটার কাজ করছিলেন। এসময় একই গ্রামের আব্দুস সালামের ছেলে মাদক ব্যবসায়ী মুকুল হোসেন আকস্মিকভাবে বাড়ির মধ্যে প্রবেশ করে। এমনকি কোন কিছু না বলেই আমার মা মনোয়ারা বেগমকে হাতুড়ি দিয়ে পেটাতে থাকে। একপর্যায়ে মাথায় আঘাত করলে জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। এরপর স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এলে মুকুল পালিয়ে যায়। পরে আশঙ্কাজনক উদ্ধার করে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে নেয়া হয়। কিন্তু অবস্থার অবনতি ঘটলে তাৎক্ষণিক বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। বর্তমানে সেখানে তিনি মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে।

আবু জাফর অভিযোগ করে বলেন, এ ঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়া হলেও রহস্যজনক কারণে পুলিশ কোন ব্যবস্থা নিচ্ছেন না। এমনকি ঘটনার প্রায় এক সপ্তাহ পার হতে চললেও অভিযোগ তদন্তকারী কর্মকর্তা ঘটনাস্থলেই যাননি। তাই সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তাতের সু-দৃষ্টি কামনাসহ তদন্তপূর্বক অপরাধীকে দ্রুততম সময়ের মধ্যে আইনের আওতায় আনার জন্য জোর দাবি জানান তিনি। এ প্রসঙ্গে বক্তব্য জানতে চাইতে অভিযুক্ত মুকুল হোসেনের সঙ্গে মোবাইলফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হয়। কিন্তু ফোন বন্ধ থাকায় তার বক্তব্য জানা সম্ভব হয়নি। এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে শেরপুর থানার সহকারি উপ-পরিদর্শক (এএসআই) মোর্শেদা বেগম এসব অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, সময়মত যথাযথ পদক্ষেপ নেয়া হবে।

বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন।

No comments

Leave a Reply

seventeen − four =

সম্পাদকীয়

    উপ-সস্পাদকীয়

    সংবাদ আর্কাইভ

    সংবাদ