Menu

বগুড়ায় ব্যাংকের ৩১ কোটি টাকা দূর্নীতি মামলায় আওয়ামীলীগ নেতা মান্নান আকন্দ কারাগারে

সাতমাথা অনলাইন: বগুড়ায় সোস্যাল ইসলামী ব্যাংকের (এসআইবিএল) ৩১ কোটি টাকা আত্মসাৎ মামলায় আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল মান্নান আকন্দ এবং ওই ব্যাংকের ব্যবস্থাপক (বর্তমানে বরখাস্ত) রফিকুল ইসলামকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার তারা বগুড়ার সিনিয়র স্পেশাল জজ আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন চাইলে বিচারক এমরান হোসেন চৌধুরী নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) কোর্ট ইন্সপেক্টর নিশিত কুমার ঘোষ জানান, ২০০৮ সালের ২৩ অক্টোবর থেকে পরবর্তী তিন বছরে এসআইবিএলের বগুড়া শাখা থেকে তৎকালীন ব্যবস্থাপক, দুই কর্মকর্তা এবং ৬ ব্যবসায়ীসহ ৯ জন মিলে বিভিন্ন গ্রাহকের নামে ভুয়া ঋণ হিসাব খুলে ৩১ কোটি ১৯ লাখ ৪৯ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেন।
ওই ঘটনায় এসআইবিএলের বগুড়া শাখার তৎকালীন ব্যবস্থাপক শফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে ২০১১ সালে মামলা করেন।

পরে দুদক মামলাটি তদন্ত করে এবং ২০১৭ সালে আদালতে চাজশিট দাখিল করে। চার্জশিটভুক্ত আসামিরা হলেন- এসআইবিএলের সাবেক ব্যবস্থাপক রফিকুল ইসলাম, সাবেক প্রথম ভাইস প্রেসিডেন্ট (বর্তমানে বরখাস্ত) আতিকুল কবির, সাবেক নির্বাহী কর্মকর্তা (বর্তমানে বরখাস্ত) মাহবুবুর রহমান, ব্যবসায়ী আকতার হোসেন মামুন, জহুরুল হক মোমিন, এনামুল হক বাবু, মাকসুদুলম আলম খোকন, ফেরদৌস আলম এবং বগুড়া শহর আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক শুকরা এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী আব্দুল মান্নান আকন্দ।

দুদকের পাবলিক প্রসিকিউটর আবুল কালাম আজাদ জানান, চার্জশিট দাখিলের পর গত ৪ মার্চ আসামীদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়। তাদের মধ্যে ৩ জন জামিনে রয়েছেন। পলাতক ৬জনের মধ্যে সাবেক ব্যবস্থাপক রফিকুল ইসলাম এবং আব্দুল মান্নান আকন্দ মঙ্গলবার সকালে স্পেশাল জজ আদালতে আত্মসমর্পণ করেন।

বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন।

No comments

Leave a Reply

18 + 12 =

সম্পাদকীয়

    উপ-সস্পাদকীয়

    সংবাদ আর্কাইভ

    সংবাদ