Menu

বগুড়ায় ‘বিজলী প্লাস’ জাতের মরিচ চাষে কৃষকের বাজিমাত

আল-ইমরান, শেরপুর (বগুড়া) থেকে:
বগুড়ায় কৃষকদের মাঝে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে হাইব্রিড জাতের মরিচ ‘বিজলী প্লাস’। এই জাতের মরিচ চাষ করে লাভবান হচ্ছেন কৃষক। তাই তারা এই জাতের মরিচ চাষে ঝুঁকে পড়েছেন। বাম্পার ফলন আর গুণগতমান ভালো হওয়ায় এই মরিচ চাষে তাদের আগ্রহ বাড়ছে। ইতিমধ্যে এ আর মালিক সীডস্ প্রাইভেট লিমিটেড ও বীজতলা কোম্পানির ‘বিজলী প্লাস’ জাতের মরিচ দেশজুড়ে খ্যাতি অর্জন করায় চাহিদাও বেড়েছে। জাহিদুল ইসলাম নামে এক কৃষক উচ্চ ফলনশীল এই মরিচ চাষ করে চমক দেখিয়েছেন। তিনি এবছর তিন বিঘা জমিতে ‘বিজলী প্লাস’ মরিচ চাষ করেছেন। উক্ত জমি থেকে এ পর্যন্ত ৫০মণ করে দশবার মরিচ উত্তোলন করে প্রায় সাড়ে ৬লাখ টাকার মরিচ বিক্রি করেছেন।

গত সোমবার (১৪জানুয়ারি) জেলার শেরপুর, শাজাহাপুন ও নন্দীগ্রাম এই তিন উপজেলার কৃষকদের নিয়ে মাঠ দিবস অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। ওই অনুষ্ঠানে শাজাহানপুর উপজেলার শরীপাড়া গ্রামের কৃষক জাহিদুল ইসলাম জানান, এই জাতের মরিচের রং, সাইজ অত্যন্ত আকর্ষণীয়, ত্বক মসৃণ, এবং বাজার মুল্যে অন্যান্য মরিচের তুলনায় বেশী। পাশাপাশি তাঁর জমিতে মরিচ গাছে যে ফলন হয়েছে তা দেখে আশ-পাশের কৃষকরা চমকে গেছে। এত ভাল ফলন দেখে এই এলাকার কৃষকরা আগামীতে এই জাতের মরিচ চাষে আগ্রহী হবেন বলে জানান তিনি।

কৃষক আনিছুর রহমান ও আলমগীর হোসেন জানান, “বিজলী প্লাস” মরিচের গড় ফলন একর প্রতি ৩০-৩৫ মেট্রিক টন। এছাড়া অন্যান্য জাতের তুলনায় বিজলী প্লাস মরিচের ফলন আগে পাওয়া যায়। পাশাপাশি বাজারে চাহিদা থাকায় বেশি দামেই এই মরিচ বিক্রি হয়। সবমিলে এই জাতের মরিচ চাষে এমন সফলতা আসবে তা ভাবতেও পারেননি বলে জানান তাঁরা।

বীজ আমদানী কারক ও বাজারজাতকারী প্রতিষ্ঠান এ আর মালিক সীড্স’র আয়োজনে জেলার শাজাহানপুর উপজেলা গোহাইল ইউনিয়নের শরিপাড়া গ্রামে অনুষ্ঠিত মাঠ দিবস অনুষ্ঠানে এই তিন উপজেলার ২৫০জন কৃষক, ছয়জন উপ-সহকারি কৃষি কর্মকর্তা, আটজন ডিলার ও বিক্রেতাসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুল করিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন কৃষি কর্মকর্তা আবু তাহের, মোছা. মাকসুদা বানু, সুজন কুমার, মোছা. মাহমুদা আক্তার, এ আর মালিক সীডের ডিভিশনাল ইনচার্জ সুবোধ কুমার বিশ্বাস, জেডএসসি রনি খায়রুল ইসলাম, কৃষক মতিলাল সরকার, হারেজ উদ্দিন, জিল্লুর রহমান, আবু রায়হান, আলমগীর হোসেন, মিলন রহমান, আশরাফ আলী প্রমুখ।

বক্তব্যে তারা বলেন, এ বছর বিজলী প্লাস মরিচের বাম্পার ফলন হয়েছে। এই জাতের মরিচ চাষ করে তাঁরা লাভবান হয়েছেন । তাই আগামি দিনেও এলাকার কৃষকরা এই মরিচের চাষে ঝুকবেন।

বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন।

No comments

Leave a Reply

2 × one =

সম্পাদকীয়

    উপ-সস্পাদকীয়

    সংবাদ আর্কাইভ

    সংবাদ