Menu

দুপুরে প্রথম টি-টুয়েন্টিতে ইন্ডিজের মুখোমুখী বাংলাদেশ

সাতমাথা ডেস্ক:

দূরে মাইকে কোথাও বেজে চলেছে বিজয় দিবসে কচিকাঁচার কণ্ঠে আমার সোনার বাংলা…। মাঠে আসার পথেও দেখা গেছে, ফুলের তোড়া নিয়ে সিলেটের শহীদ মিনারের দিকে প্রভাতফেরির ঢল। কার্লোস ব্রাথওয়েট জানান, তাদের ওখানেও শুরু হয়ে গেছে উৎসব- ক্রিসমাসের উৎসব। ‘আমরা এই সিরিজটি জিতে ক্যারিবীয়দের ক্রিসমাস উপহার দিতে চাই।’ জার্সিতে দু-দু’বার বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হওয়ার তারকা চিহ্ন নিয়ে খেলতে এসেছে তারা। এই ফরম্যাটে তারাই বর্তমানে বিশ্বসেরা- এটা ব্রাথওয়েট যেন বারবার মনে করিয়ে দিতে চাইছিলেন। হয়তো ভুলেই গিয়েছিলেন, টাইগারদেরও বিজয় দিবসের উপহার দেওয়া কিছুটা বাকি আছে, টেস্ট আর ওয়ানডের পর এখন টি২০ ট্রফিটাই বা অন্যকে দেবে কেন! নিজেদের ফেভারিট ঘোষণা দিয়েও তাই একটি ‘সারপ্রাইজ’-এর ইঙ্গিত দিয়ে রাখলেন টাইগার কোচ স্টিভ রোডস। ‘হতে পারে তারা বিশ্বসেরা, আমাদের চেয়ে র‌্যাংকিংয়ে (ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৭, বাংলাদেশ ১০) এগিয়ে। আমরা সে তুলনায় ফেভারিট নই। তবে আমরা কিন্তু তাদের ফ্লোরিডায় হারিয়েছিলাম, চমকে দিয়েছিলাম ওই সিরিজে। আমার বিশ্বাস, আরও একটি সারপ্রাইজের অপেক্ষা করতে পারে সমর্থকরা। ওয়ানডে আর টেস্ট সিরিজ জয়ের আত্মবিশ্বাসই আমাদের এগিয়ে রাখবে।’

ভেতরে এমনই এক বিশ্বাস নিয়ে আজ সিলেটে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টি২০-তে মাঠে নামছে টাইগাররা। ম্যাচটি শুরুতে ফ্লাডলাইটে হওয়ার কথা থাকলেও শেষ পর্যন্ত আজ শুরু হচ্ছে দুপুর সাড়ে ১২টায়। এই মাঠে আগের একটি টি২০ ম্যাচ হারলেও এবার সাকিবরা কিন্তু বেশ আশাবাদী। যদিও এ বছর এই ফরম্যাটে সেভাবে সাফল্য আসেনি সাকিবদের। ১৩ ম্যাচের মধ্যে চারটি মাত্র জয়। সবচেয়ে ভয়াবহ কাণ্ড ঘটেছিল আফগানিস্তানের সঙ্গে তিন ম্যাচের সবক’টি হেরে। তবে নিদাহাস ট্রফির ফাইনালে জায়গা করে নেওয়া এবং আমেরিকায় গিয়ে উইন্ডিজকে হারানোর সুখস্মৃতি রয়েছে। তার পরও দলে হার্ডহিটারের একটা কমতি ধরা পড়েছে কোচের চোখে। তাই গতকালের অনুশীলনে তামিম থেকে শুরু করে মেহেদী হাসান মিরাজ পর্যন্ত প্রত্যেককেই হাত খুলে শট মারার প্র্যাকটিস করানো হয়েছে।

শুধু সাকিবকেই মেডিকেল রুমে বসে থাকতে হয়েছে। এদিন অনুশীলনের সময় পায়ের আঙুলে চোট পান তিনি।

তবে সর্বশেষ খবর হলো, তার পায়ে এক্স-রে করানোর প্রয়োজন হয়নি এবং তিনি আজ মাঠে নামার জন্য প্রস্তুত। আজকের একাদশে তিন পেসার মুস্তাফিজ, রুবেল আর সাইফউদ্দিনের খেলা অনেকটাই নিশ্চিত। এক থেকে আট- তামিম, লিটন, সৌম্য, মুশফিক, সাকিব, মিঠুন, রিয়াদ ও সাইফউদ্দিন- সলিড ব্যাটসম্যান থাকছে রান তোলার জন্য। টাইগারদের জন্য এই মাঠের ডিজাইন পিচও তৈরি করে রেখেছেন বিসিবির ভারতীয় কিউরেটর সঞ্জীব আগরওয়াল। ধারণা করা হচ্ছে, ১৭০ থেকে ১৮০ রান সহজেই উঠে যাবে এখানে। তবে প্রতিপক্ষ ছাড়াও মাথায় রাখতে হচ্ছে আবহাওয়ার খবরকে। আজ এখানে বিকেলের দিকে হালকা বৃষ্টি হতে পারে। তাই ম্যাচের টস জেতার অ্যাডভান্টেজ যে কোনো অধিনায়কই নিতে চাইবেন। এ বছর টাইগারদের তুলনায় ক্যারিবীয়দের টি২০ পারফরম্যান্স কিন্তু নিচের দিকে। তারা মোট ১২ ম্যাচ খেলে জিতেছে দুটিতে। মাত্রই দলটি ভারত থেকে তিনটি ম্যাচই হেরে এসেছে।

তার পরও ওই যে তাদের জার্সিতে থাকা দুই তারকা- আতঙ্কটা সেখানেই। যে কোনো পরিস্থিতিতে এই দলটি ম্যাচ ঘুরিয়ে দেওয়ার সামর্থ্য রাখে। এদিন সাংবাদিকদের সামনে এসে সেটিই যেন বারবার বলতে চাইছিলেন। আর তখনই তাকে চটিয়ে দেওয়ার জন্য প্রশ্নটি- এই দলে গেইল, পোলার্ড, রাসেলদের কেউ নেই। অভিজ্ঞতায় অন্তত বাংলাদেশের থেকে আপনারা পিছিয়ে। গেইলদের নাম নেওয়ায় বোধহয় একটু অখুশিই হলেন ব্রাথওয়েট। ‘দেখুন, আমাদের দলটিতে অনেক ধরনের কাটছাঁট হয়েছে অনেক কারণে। অনেককেই আমরা পাইনি, তবে আমরা যারা এই সফরে এসেছি তারা একত্রে থেকে সুন্দরভাবে সিরিজটি শেষ করতে চাই। প্রথম ম্যাচটি জিতেই আমরা নিজেদের ছন্দটা খুঁজে পেতে চাই। আমাদের এই দলে কিন্তু লুইস, হেটমেয়ার আর শাই হোপের মতো ক্রিকেটার আছে। যারা কি-না নিজেদের দিনে প্রতিপক্ষকে অস্বস্তিতে ফেলতে পারে।’ ইঙ্গিতটা পরিস্কার, ওই ত্রয়ীর কাছ থেকেই বিস্ম্ফোরক ইনিংস আশা করছেন ক্যারিবিয়ান অধিনায়ক।

যেমনটি তামিম-লিটনের কাছ থেকে চাইছেন টাইগার কোচ। এই দলের বিপক্ষেই ফ্লোরিডায় নিজেকে ফিরে পেয়েছিলেন লিটন দাস। ওই সিরিজের শেষ ম্যাচে করেছিলেন ৬১। ‘গোটা সিরিজে ছেলেরা যা করেছে তারপর আর তাদের কাছ থেকে খুব বেশি চাইতে পারি না, তবে আমি চাইছি, টেস্ট আর ওয়ানডের মতো টি২০ও যেন জিতে যায় ছেলেরা। এটা জেনেই যে, এই ফরম্যাটে উইন্ডিজ বিশ্বসেরা। এই সিরিজের শেষে আমরাই হাসতে চাই।’ বলার সময়ও হেসে দিলেন টাইগার কোচ স্টিভ রোডস। নিজেদের ফেভারিট বলে চাপ না নিয়ে সেটা ক্যারিবীয়দের কোর্টেই ঠেলে দিলেন তিনি। ম্যাচের আগে এটাও ম্যাচেরই একটা কৌশল টাইগারদের।

বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন।

No comments

Leave a Reply

three × two =

সম্পাদকীয়

    উপ-সস্পাদকীয়

    সংবাদ আর্কাইভ

    সংবাদ