Menu

কেন টার্গেট আল জাজিরা?

সাতমাথা ডেস্ক: ১১ বছর ধরে ভবনটিতে অফিস করতেন আল-কাহলাউত। গাজায় ইসরাইলি বর্বরতার খবর দিয়ে এরইমধ্যে বিশ্বব্যাপী এক পরিচিত মুখ। আল জাজিরার এই সংবাদদাতা গতকাল বিবরণ দিচ্ছিলেন তার দীর্ঘ দিনের স্মৃতি বিজড়িত অফিসটি কীভাবে নিশ্চিহ্ন করে দিয়েছে ইসরাইলি বাহিনী। একই ভবনে অফিস ছিল আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থা এপি’রও। আল-কাহলাউত বলেন, এই ভবন থেকে আমি অনেক খবর প্রচার করেছি। এখানে সহকর্মীদের সঙ্গে আমাদের অনেক সুখস্মৃতি রয়েছে। কিন্তু মাত্র দুই সেকেন্ডে এটিকে নিশ্চিহ্ন করে দেয়া হয়েছে।

মিডিয়া ভবন গুঁড়িয়ে দেয়ার পুরো ঘটনা সরাসরি সম্প্রচার করেছে আল জাজিরা। চ্যানেলটির উপস্থাপক আবেগপূর্ণ ভাষায় বলেন, আমাদের চ্যানেলকে চুপ করানো যাবে না।

বার্তা সংস্থা এপি’র প্রধান নির্বাহী গ্যারি প্রুইট বলেন, এ আক্রমণে আমরা স্তম্ভিত এবং আতঙ্কিত। এক ঘণ্টা সময় দেয়া হয়েছিল ভবনটি খালি করতে। ১০ মিনিট বাড়তি সময় চেয়ে অনেক অনুরোধ করেছিলেন ভবন মালিক। কিন্তু তাতে সাড়া দেয়নি ইসরাইলি বাহিনী।

কেন আক্রান্ত মিডিয়া? কেন গুঁড়িয়ে দেয়া হলো আল জাজিরার অফিস? এবার গাজায় ইসরাইলি হামলার শুরু থেকেই মিনিটে মিনিটে আপডেট দিচ্ছিল আল জাজিরা। পশ্চিমা বেশিরভাগ গণমাধ্যম যখন এ নিয়ে দ্বৈত নীতি অনুসরণ করছে তখন পুরো ঘটনা বিশ্বের সামনে তুলে ধরছিল আল জাজিরা। আর সম্ভবত এতেই ক্ষুব্ধ হয় ইসরাইল। বিশ্বব্যাপী নিন্দা হতে পারে এমন ঝুঁকি থাকার পরও তারা টার্গেট করে আল জাজিরার অফিস। মূলত গাজায় সংঘটিত বর্বরতা গোপন রাখতেই তাদের এই কৌশল। ইসরাইলি বংশোদ্ভূত মার্কিন কংগ্রেসের প্রতিনিধি পরিষদের সদস্য রাশিদা তালিব এমনটাই বলেছেন। আল জাজিরার জেরুজালেম ব্যুরো প্রধান ওয়ালিদ আল ওমারির মতও অনেকটা তাই। তিনি বলেন, যেসব মিডিয়া গাজায় আসলে কী হচ্ছে তার খবর সংগ্রহ ও প্রচার করছে তাদের চুপ করাতেই এ হামলা। তবে দ্ব্যর্থহীন কণ্ঠে তিনি বলেন, এটা সম্ভব নয়। আমরা চুপ করবো না।

একটি মিডিয়া হাউস এভাবে গুঁড়িয়ে দেয়ার পর বিশ্বব্যাপী যেভাবে নিন্দা হওয়ার কথা তা হচ্ছে না। হালকা কিছু প্রতিবাদ লক্ষ্য করা যাচ্ছে। বাক স্বাধীনতার প্রশ্নেও যে বিশ্বের ক্ষমতাধররা দ্বৈত নীতি অনুসরণ করেন তা অনেকটাই স্পষ্ট। দৃশ্যত গাজায় ইসরাইলি হামলার প্রতি খোলাখুলি সমর্থন জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। যদিও গণমাধ্যম অফিসে হামলায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন তিনি। হামলা থেকে সাংবাদিকদের সুরক্ষিত রাখতে ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহুর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন।

No comments

Leave a Reply

four + 17 =

সম্পাদকীয়

    উপ-সস্পাদকীয়

    সংবাদ আর্কাইভ

    সংবাদ